পোস্ট সূচি

অনলাইনে ইসলামী ব্যাংকে একাউন্ট খোলার নিয়ম ২০২৪

আপনার কোনো ব্যাংক একাউন্ট নেই? একটি ভালো ব্যাংকে একাউন্ট খুলতে চান? তাহলে এই ব্লগটি পড়ুন। আজ জানতে পারবেন ইসলামী ব্যাংকে একাউন্ট খোলার নিয়ম সম্পর্কে।

প্রযুক্তির আশির্বাদে আমাদের ব্যাংকিং খাত ব্যাপক উন্নত হয়েছে। এখন ঘরে বসেই অনলাইনে ইসলামী ব্যাংকের একাউন্ট খোলা যায়।

আজকের এই ব্লগে আমরা জানবো ইসলামী ব্যাংকে একাউন্ট খুলতে কি কি লাগে, কত টাকা লাগে এছাড়া এ বিষয়ক বিস্তারিত তথ্য।

অনলাইনে ইসলামী ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম
ইসলামী ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম

বাংলাদেশে যতগুলো বাণিজ্যিক ব্যাংক রয়েছে তার মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় ও বড় মূলধনী ব্যাংক হলো Islami Bank Bangladesh PLC. দীর্ঘদিন ধরে প্রতিষ্ঠানটি গ্রাহকদের নানাবিধ ব্যাংকিং সেবা দিয়ে আসছে। এছাড়া এই ব্যাংকটি শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে ব্যাংকিং সেবা দিচ্ছে।

ফলে অনেকের পছন্দের ব্যাংকের তালিকায় আছে ইসলামী ব্যাংক। আজ আপনাদেরকে জানাবো ব্রাঞ্চে না গিয়ে ঘরে বসেই অনলাইনে ইসলামী ব্যাংকে একাউন্ট খোলার নিয়ম ২০২৪

ইসলামী ব্যাংক একাউন্ট কত প্রকার?

মূল আলচনায় যাওয়ার পূর্বে সহায়ক ও গুরুত্বপূর্ণ কিছু বিষয় জেনে নেওয়া যাক। আপনি যদি এই প্রথম ব্যাংক একাউন্ট খুলতে যান তাহলে ধরে নিতে পারি আপনি ব্যাংক একাউন্টের প্রকারভেদ সম্পর্কে খুব একটা অবগত নন।

অনেকেই বুঝতে পারেন না তার জন্য কোন একাউন্টটি সুবিধাজনক। ইসলামী ব্যাংকে কয়েক ধরনের হিসাব খোলার সুযোগ রয়েছে। সেগুলো সম্পর্কে নিচে একটা সংক্ষিপ্ত পরিচিতি দেওয়ার চেষ্টা করছি।

  • আল-ওয়াদিয়াহ কারেন্ট একাউন্টঃ যারা ব্যবসায়ী কিংবা নিয়মিত খুব বেশি লেনদেন করেন তাদের জন্য এই একাউন্টটি উপযোগী। Al-Wadeah Current Account (AWCA) একাউন্টে প্রতিদিন যতবার খুশি টাকা জমা দেওয়া যায় ও যতবার খুশি উত্তোলন করা যায়। এই একাউন্ট পরিচালনার জন্য ব্যাংক প্রতিমাসে লেনদেনের পরিমাণের উপরে ভিত্তি করে চার্জ ধার্য্য করে। এছাড়া এই হিসাবের সাথে চেক বই, ডেবিট কার্ড ও ইন্টারনেট ব্যাংকিং সুবিধা রয়েছে। যেকোনো ব্যক্তি কিংবা ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান ন্যূনতম ১০০০ টাকা জমা দিয়ে AWCA খুলতে পারে।
  • আল-ওয়াদিয়াহ পারসোনাল রিটেইল একাউন্টঃ যারা অনলাইনে কিংবা অফলাইনে খুব ছোট পরিসরে রিটেইল ব্যবসায় করেন তাদের জন্য এই হিসাব। AWPRA খুলতে কোনো ট্রেড লাইসেন্সের প্রয়োজন হয় না। ব্যক্তি তার জাতীয় পরিচয়পত্র ব্যবহার করেই একাউন্ট খুলতে পারবেন। এই একাউন্টের মাধ্যমে QR Code ও POS Machine ব্যবহার করে লেনদেন করতে পারবে।
  • মুদারাবা সেভিংস একাউন্টঃ যারা নির্দিষ্ট আয়ের ব্যক্তি (চাকরিজীবী, শিক্ষার্থী) তাদের জন্য এই একাউন্ট সবচেয়ে বেশি উপযোগী। এই একাউন্টে জমাকৃত টাকার বিপরীতে স্বল্প হারে মুনাফা দেওয়া হয়। এছাড়া চেক বই, ডেবিট কার্ড, ইন্টারনেট ব্যাংকিং সুবিধা ভোগ করতে পারবেন MSA একাউন্টের মাধ্যমে।
  • মুদারাবা স্পেশাল সেভিংস একাউন্টঃ এটাকে অনেকেই পেনশন একাউন্টও বলে। এই একাউন্টে আপনি প্রতি মাসে ১০০ থেকে ২০০০০ টাকা পর্যন্ত জমা রাখতে পারবেন ৩ থেকে ১০ বছর মেয়াদে। এই একাউন্টের সাথে কোনো চেক বই বা ডেবিট কার্ড ইস্যু করা হয় না। আপনি মেয়াদ পূর্তির আগে টাকা উঠাতে পারবেন না। যদি বিশেষ প্রয়োজনে উঠাতে হয় তাহলে এর জন্য কোনো মুনাফা পাবেন না।
  • স্টুডেন্ট মুদারাবা সেভিংস একাউন্টঃ এটি ১৮ বছর বয়সী অথবা তার চেয়ে কম বয়সী শিক্ষার্থীদের জন্য। যাদের বয়স ১৮+ হয়েছে তারা নিজের জাতীয় পরিচয়পত্র বা জন্ম সনদ দিয়ে একাউন্ট চালু করতে পারবে। আর যাদের বয়স ১৮ এর নিচে তারা অভিভাবকের জাতীয় পরিচয়পত্র দিয়ে যৌথভাবে একাউন্ট খুলতে পারবে। SMSA একাউন্টে সম্পূর্ণ ফ্রিতে লেনদেন করা যায় এবং একটি ডেবিট কার্ড পাওয়া যায়। স্টুডেন্ট একাউন্ট খুলতে ন্যূনতম ১০০ টাকা জমা দিতে হয়।

এছাড়া আরও কয়েক ধরনের মুদারাবা সেভিংস একাউন্ট রয়েছে। সেগুলো খুব বেশি জনপ্রিয় না, সেজন্য তাদের পরিচিতি এখানে উল্লেখ করলাম না।

ইসলামী ব্যাংক একাউন্ট খুলতে কি কি লাগে?

কারেন্ট অথবা সেভিংস ইসলামী ব্যাংক একাউন্ট খুলতে যা যা লাগে-

  1. আবেদনকারীর জাতীয় পরিচয়পত্র, পাসপোর্ট অথবা ট্রেড লাইসেন্স
  2. আবেদনকারীর সম্প্রতি তোলা ২ কপি পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ছবি
  3. নমিনির জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি ও ১ কপি ছবি
  4. ন্যূনতম জমা টাকা
  5. জাতীয় পরিচয়পত্র/পাসপোর্ট থেকে বর্তমান ঠিকানা ভিন্ন হলে বিদ্যুৎ বিল অথবা যেকোনো ইউটিলিটি বিলের কপি
এর সাথে একটি আবেদন ফরম পূরণ করতে হবে। এটি ব্যাংকের শাখায় গেলেই পাওয়া যাবে। আর যদি অনলাইনে একাউন্ট খুলতে চান তাহলে নিচের দেখানো পদ্ধতি অনুসরণ করুন।

ইসলামী ব্যাংক একাউন্ট খুলতে কত টাকা লাগে?

একেক ধরনের একাউন্ট খুলতে ভিন্ন ভিন্ন পরিমান টাকা লাগে। যেমন ইসলামী ব্যাংক সেভিংস একাউন্ট খুলতে ন্যূনতম ৫০০ টাকা লাগে। কারেন্ট একাউন্ট খুলতে ন্যূনতম ১০০০ টাকা এবং স্টুডেন্ট মুদারাবা সেভিংস একাউন্ট খুলতে ন্যূনতম ১০০ টাকা জমা দেওয়া লাগে।

ইসলামী ব্যাংকে একাউন্ট খোলার নিয়ম

আপনি দুইভাবে ইসলামী ব্যাংক একাউন্ট খুলতে পারেন। একটি হলো অনলাইনে Cellfin অ্যাপ ব্যবহার করে একাউন্ট খোলা এবং দ্বিতীয়টি হলো সরাসরি ব্যাংকের শাখায় গিয়ে কাগজপত্র জমা দিয়ে একাউন্ট খোলা।

তবে আজকের এই ব্লগে আমরা অনলাইনে কিভাবে একাউন্ট খুলবেন তা দেখাবো।

সেলফিন অ্যাপে ইসলামী ব্যাংকে একাউন্ট খোলার নিয়ম

ঘরে বসে আপনি যদি ব্যাংক একাউন্ট খোলা থেকে শুরু করে যাবতীয় ইন্টারনেট ব্যাংকিং এর যাবতীয় সুবিধা ভোগ করতে চান তাহলে প্রথমে একটা সেলফিন একাউন্ট থাকা লাগবে। ঘরে বসে ইসলামী ব্যাংক একাউন্ট খুলতে নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করুন।

ধাপ-১ঃ সেলফিন একাউন্ট খোলা

সর্বপ্রথম যে কাজটি করতে হবে তা হলো প্লে স্টোর বা অ্যাপ স্টোর থেকে সেলফিন অ্যাপ ইনস্টল করে একটি একাউন্ট খুলতে হবে। এজন্য প্রয়োজন হবে আবেদনকারীর জাতীয় পরিচয়পত্র ও একটি সচল মোবাইল নাম্বার।

সেলফিন একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন

বি.দ্রঃ আগে দেশের বাইরে থেকে সেলফিন একাউন্ট ওপেন করা যেত না। তবে বর্তমানে সৌদি আরব, কাতার, সংযুক্ত আরব-আমিরাত, সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া সহ অনেক দেশ থেকে সেলিফিন একাউন্ট ওপেন করা যায়।

ধাপ-২ঃ সেলফিনে লগিন করা

Cellfin অ্যাপে একাউন্ট খোলা হলে লগিন করুন এবং হোম পেইজ থেকে নিচে ডানপাশে থাকা "Open A/C" অপশনটি নির্বাচন করুন।

অনলাইনে ইসলামী ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম

ধাপ-৩ঃ ব্যাংক শাখা ও ব্যক্তিগত তথ্য প্রদান

এবার আপনি যে শাখার অধীনে একাউন্ট খুলতে চান সেই শাখা নির্বাচন করুন এবং তার তথ্য প্রদান করুন। চেষ্টা করবেন আপনি বর্তমানে যেখানে অবস্থান করছেন তার আশেপাশের কোনো শাখা নির্বাচন করতে যাতে যেকোনো প্রয়োজনে শাখায় দ্রুত যোগাযোগ করতে পারেন।

ব্যক্তিগত তথ্য পূরণ

তারপরে পিতা-মাতার নাম, বৈবাহিক সম্পর্ক, মাসিক আয় ও আয়ের উৎস নির্বাচন করুন। যদি আপনি স্টুডেন্ট হয়ে থাকেন তাহলে Source of Fund থেকে Tuition and grants নির্বাচন করবেন।

ধাপ-৪ঃ বর্তমান ঠিকানা প্রদান

এবার আপনার বর্তমান ঠিকানার তথ্য প্রদান করবেন। Post Code জানা না থাকলে গুগলে থানা অথবা উপজেলা লিখে সার্চ করলে পোস্টাল কোড পেয়ে যাবেন।

বর্তমান ঠিকানা পূরণ

এরপরে Submit বাটনে ক্লিক করলে পরবর্তী পেইজে একটা কনফারমেশন ভিউ দেখতে পাবেন। সেখানে সকল তথ্য সঠিক থাকলে Confirm বাটনে ক্লিক করবেন।

তথ্যদি নিশ্চিতকরণ

আর কোনো তথ্য ভুল থাকলে ব্যাক গিয়ে তা সংশোধন করা যাবে।

ধাপ-৫ঃ একাউন্টের ধরন নির্বাচন

উপরে কয়েক ধরনের একাউন্ট সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত তথ্য দিয়েছি। আপনার জন্য কোন ধরনের একাউন্ট সবচেয়ে উপযোগী হবে আগে তা ঠিক করুন।

একাউন্ট নির্বাচন

অনলাইনে ইসলামী ব্যাংকের যত ধরনের একাউন্ট খোলা যায় তার সবগুলো এখানে দেখতে পাবেন। আপনি যে ধরনের একাউন্ট খুলতে চান সেটা নির্বাচন করুন।

ধাপ-৬ঃ নমিনির তথ্য প্রদান

এই ধাপে নমিনির নাম, পিতা-মাতার নাম, নমিনির সাথে একাউন্ট হোল্ডারের সম্পর্ক, নমিনির পাসপোর্ট অথবা এনআইডির ছবি আপলোড করতে হবে।

নমিনির তথ্য পূরণ

নমিনি হলো ওই ব্যক্তি যিনি একাউন্ট হোল্ডালের মৃত্যু বা অবর্তমানে ওই একাউন্ট পরিচালনা ও একাউন্টের অর্থ উত্তোলন করতে পারে।

নমিনির তথ্য আপলোড করে Submit বাটনে ক্লিক করলে আপনার একাউন্ট সফলভাবে খোলা হবে। এবং আপনি নিচের ছবির ন্যায় একটি Confirmation মেসেজ দেখতে পাবেন।

অনলাইনে ইসলামী ব্যাংক একাউন্ট খুলুন

আমি এখানে একটি Mudaraba Special Savings Account বা DPS একাউন্ট খুলে দেখিয়েছি। সেজন্য উপরের ছবিটিতে Installment Amount (কিস্তির পরিমান) দেখাচ্ছে।

ইসলামী ব্যাংক একাউন্ট চেক করার নিয়ম

অনলাইনে ইসলামী ব্যাংকে একাউন্ট খোলার নিয়ম কী তা তো জানলেন। এবার আসুন account check করার বিষয়ে কথা বলি।

আগে আমাদের ব্যাংক একাউন্টের ব্যালেন্স জানার জন্য ব্যাংকে যেতে হতো অথবা হটলাইনে কল দিতে হতো। কিন্তু ইন্টারনেট ব্যাংকিং এর সুবাদে এখন আমরা মুহুর্তের মধ্যে ঘরে বসেই ইসলামী ব্যাংক একাউন্ট চেক করতে পারি।

মাত্র ৩টি ধাপে ইসলামী ব্যাংক একাউন্ট চেক করার নিয়ম বর্ণনা করছি। আশা করছি এটা আপনাদের উপকারে আসবে।

ধাপ-১ঃ সেলফিন অ্যাপে লগিন করে হোম পেইজ থেকে "Bank A/C" লেখা অপশনে ক্লিক করুন।

ইসলামী ব্যাংক একাউন্ট চেক

ধাপ-২ঃ এরপরের পেইজে আপনার সেলফিন একাউন্টের সাথে যুক্ত সকল ব্যাংক একাউন্ট দেখতে পাবেন। সেখান থেকে কাঙ্ক্ষিত একাউন্টটি নির্বাচন করুন।

সেলফিনে ব্যাংক ব্যালেন্স দেখার নিয়ম

ধাপ-৩ঃ এবার যে পেইজটি আসবে সেখানে আপনার ব্যাংক একাউন্টের ব্যালেন্স দেখতে পাবেন। এখানে দুই ধরনের ব্যালেন্স দেখা যায়।

IBBL Account check

Account Balance দ্বারা বুঝায় আপনার একাউন্টে মোট জমার পরিমাণ। আর Available Balance দ্বারা বুঝায় আপনি সর্বোচ্চ যত টাকা উত্তোলন করতে পারবেন তার পরিমাণ।

উপরের ছবিতে খেয়াল করুন আমার Available Balance আছে ২৪৯৫.৮১, তার মানে আমি এই পরিমাণ টাকা লেনদেন করতে পারবো বা চেক/কার্ড দিয়ে উঠাতে পারবো।

এছাড়া আপনার যদি ইন্টারনেট ব্যাংকিং থাকে তাহলে IBBL iSmart অ্যাপ কিংবা তাদের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ব্যালেন্স জানতে পারবেন।

আরো জানুন: TIN সার্টিফিকেট বাতিল করবেন যেভাবে

আগে হোয়াটসঅ্যাপ চ্যানেলের মাধ্যমে ব্যালেন্স জানা যেত। তবে এই সেবাটি তারা স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দিয়েছে। ফলে এখন আর হোয়াটসঅ্যাপে IBBL একাউন্ট ব্যালেন্স চেক করতে পারবেন না।

সেলফিন অ্যাপে ব্যাংক একাউন্ট অ্যাড করবেন যেভাবে

আপনি যদি সেলফিন অ্যাপ থেকে ব্যাংক একাউন্ট খুলে থাকেন তাহলে আলাদা করে এখানে ব্যাংক একাউন্ট যুক্ত করতে হবে না।

কিন্তু যারা আগে ব্যাংক একাউন্ট খুলেছে এবং পরে সেলফিন অ্যাপে রেজিস্ট্রেশন করেছে তারা কীভাবে সেলফিনে ব্যাংক একাউন্ট যুক্ত করবে সেটা দেখাচ্ছি।

ধাপ-১: সেলফিন অ্যাপে লগিন করুন এবং হোম পেইজের Bank A/C অপশনে ক্লিক করুন। তাহলে পরবর্তী পেইজে একদম নিচে ডানকোণে একটি + আইকন দেখতে পাবেন। সেখানে ক্লিক করুন।

স্টেপ-১

ধাপ-২: এবার যে পেইজ আসবে সেখানে ব্যাংক একাউন্ট নাম, নাম্বার ও একাউন্ট হোল্ডারের জন্ম তারিখ লিখুন। এই সকল তথ্য চেক দেখে লিখবেন যাতে একাউন্ট নাম্বার ও নাম ভুল না হয়।

স্টেপ-২

এরপর Submit বাটনে ক্লিক করুন।

ধাপ-৩: এবার আপনার সেলফিন নাম্বারে একটি ওটিপি যাবে সেটা লিখে Submit করুন।

স্টেপ-৩

ধাপ-৪: সঠিক ওটিপি সাবমিট করলে আপনার একাউন্ট সংযুক্ত করার আবেদন সফলভাবে জমা হবে।

সেলফিন অ্যাপে ব্যাংক একাউন্ট অ্যাড

একাউন্টটি যে আপনার সেটি ভেরিফাই করার জন্য 16259 নাম্বারে কল করতে হবে এবং একজন কাস্টমার প্রতিনিধির সাথে কথা বলতে হবে।

তিনি আপনার একাউন্ট যাচাই করার জন্য কিছু তথ্য জানতে চাইবে। সেগুলো সঠিকভাবে দিলে তিনি আপনার আবেদনটি অ্যাপ্রুভ করে দেবেন।

ইসলামী ব্যাংক হটলাইন নাম্বার

ইসলামী ব্যাংকের কাস্টমার কেয়ার বা হটলাইন নাম্বার হলো 16259, +88028331090

শেষের নাম্বারে আপনি দেশ ও বিদেশ থেকে কল করতে পারবেন। দেশের যেকোনো অপারেটর থেকে কল করলে বাড়তি খরচ নেই অথবা Talk Time ব্যবহার করেও কথা বলতে পারবেন।

ইতিকথা

ধন্যবাদ আপনাকে যদি সম্পূর্ণ ব্লগটি পড়ে থাকেন। আশা করব আপনার কাঙ্ক্ষিত সমস্যার সমাধান করতে পেরেছি। ইসলামী ব্যাংকে একাউন্ট খোলার নিয়ম ও এর সাথে প্রাসঙ্গিক অন্যান্য বিষয়ে পূর্ণাঙ্গ ধারণা দেওয়ার চেষ্টা করেছি।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন